Gallery

Advertisement

Main Ad

Travel

Technology

11

কালিগঞ্জের নলতা-তারালী সড়কটি দ্রুত সংস্কারের দাবি বর্ষা হলেই দূর্ভোগ।

আইসিটিনিউজ বিডি২৪: মাসুদ পারভেজ বিশেষ প্রতিনিধি॥ সাতক্ষীরা জেলার কালিগঞ্জ উপজেলার নলতা-তারালী সড়কটি অতিদ্রুত সংস্কার করার দাবি জানিয়েছেন পথচারীরা। বর্ষা হলেই কাঁদা-পানিতে দূর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। দীর্ঘদিন স্থায়ী সংস্কার না হওয়ায় রাস্তাটির এ অবস্থা হয়েছে। বর্তমানে রাস্তা দিয়ে মানুষ ঝুঁকি চলাচল করছেন। রাস্তাটির বর্তমান অবস্তা এতটাই নাজুক যেন অনেকটা কাঁচা রাস্তাকেই হার মানাবে। বর্ষা হলেই রাস্তাটি একটি পূর্ণাঙ্গ কাঁদা রাস্তায় পরিনত হয়। রাস্তাটি নির্মাণের পর থেকে প্রয়োজনীয় সংস্কারের অভাবে চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। নলতায় দুইটি বড় হাট ও বাজার, ইউনিয়ন পরিষদ, একটি কলেজ, মাধ্যমিক বিদ্যালয়, মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়, সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, মাদ্রাসাসহ কয়েকটি কেজি স্কুলের শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও প্রতিদিন ১০ সহস্রাধিক পথচারীর চরম দূর্ভোগের মধ্যে দিয়ে যাতায়াত করতে হয়। রাস্তায় গাড়ী চলাচল করার সময় কাঁদা-পনি সিটকে লাগে পথচারীদের গায়ে। রাস্তায় চলাচলকারী সকল শিক্ষার্থীসহ ব্যবসায়ী, সরকারী কর্মকর্তা-কর্মচারীর পরণের কাপড়ে কাঁদা মাখানোর ঘটনা নতুন কোন বিষয় নয়। সপ্তাহে প্রতি শনি ও মঙ্গলবার দুইদিন বৃহত হাট বসে নলতায়। এই হাটে তারালী, উজিরপুর, রাজাপুর, তেতুলিয়া, পাইকাড়া, কাশিবাটি, কাজলাসহ আশেপাশে বিক্রেতা ও ক্রেতাদের যাতায়াতে ব্যাপক দূর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। নলতা হাটখোলা থেকে তারালী অভিমুখে প্রায় এককিলোমিটার রাস্তার এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। রাস্তাটি নষ্ট হওয়ার কারণ হিসেবে নলতা হাটখোলার দোকান মালিক কমিটির সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্জ ইকবল হোসেন জানান, কয়েকজন রড সিমেন্ট ব্যবসায়ী ও চাউল ব্যবসায়ী ১০ চাকার ট্রাকে করে ২০ টনের অধিক মালামাল আনা নেওয়া করার কারণে রাস্তাটির এমন ক্ষতি হয়েছে। অতি প্রয়োজনীয় জনবহুল রাস্তায় ১০ চাকার ট্রাক চলাচল বন্ধ, রাস্তার উপরে ট্রাক রেখে মালামাল আনলোড করা বন্ধ করতে এবং অতিদ্রুত রাস্তাটি স্থায়ী সংস্কার করার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের আশুহস্তক্ষেপ করেছেন ভুক্তভোগি পথচারীরা।

NEXT ARTICLE Next Post
PREVIOUS ARTICLE Previous Post
NEXT ARTICLE Next Post
PREVIOUS ARTICLE Previous Post
 

Sports

Delivered by FeedBurner