Gallery

Advertisement

Main Ad

Travel

Technology

11

ভুয়া কাজী মাহবুবুর রহমানের প্রতারনার শিকার অসহায় নারী আইরিন আক্তার।

আইসিটিনিউজ বিডি২৪: এজি লাভলু, কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি: উলিপুর উপজেলায় হাতিয়া ইউপির আব্দুস সালাম কাজীর সহযোগী সাব-কাজী পরিচয়দানকারী ভুয়া কাজী মাহবুবুর রহমানের অভিনব প্রতারনায় একই উপজেলার জনৈক আইরিন আক্তার এখন অসহায় দিশেহারা হয়ে পড়েছে।

অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, কুড়িগ্রামের উলিপুর উপজেলাধীন বাগুয়া শ্যামপুর এলাকার বাসিন্দা আজাহার আলীর পুত্র দর্জি সুলতানের সাথে গত ৩ বছর পূর্বে একই উপজেলার মন্ডলেরহাট ফকিরপাড়ার বাসিন্দা আশরাফুল ইসলামের কন্যা আইরিন আক্তারের শুভ বিবাহ সম্পন্ন হয়। উলিপুরের সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান হায়দার আলীর উলিপুরস্থ বাড়ীতে ২০১৭ সালের অক্টোবর মাসে পাত্রের জ্যাঠা মৌলভী আশরাফ আলী নিজে উপস্থিত থেকে ইসলামী শরীয়ত মতে ছেলে-মেয়ের বিবাহ পড়ান। এ সময় হাতিয়া ইউপির আব্দুস সালাম কাজীর সহযোগী সাব-কাজী পরিচয়দানকারী মাহবুবুর রহমান সকলের উপস্থিতিতে বিবাহ রেজিষ্ট্রি করেন। বাংলাদেশ মুসলিম পারিবারিক আইন অধ্যাদেশ ১৯৬১ সালের ৭ম উপধারা মোতাবেক দর্জি সুলতান গত ৪ সেপ্টেম্বর একটি নোটিশের মাধ্যমে স্ত্রী আইরিন আক্তারকে তালাক প্রদান করেন। সুলতান এফিডেভিটের মাধ্যমে মুসলিম শরিয়া মোতাবেক বিবাহের কথা শিকার করলেও ভুয়া কাজী মাহবুবুর রহমানের যোগ সাজসে বিবাহ রেজিষ্টির বিষয় অস্বীকার করেছে। এ দিকে তালাকের নোটিশ পেয়ে আইরিন আক্তার তার বিয়ের নকল তুলতে ভুয়া কাজী মাহবুবুর রহমানের সাথে যোগাযোগ করেন। মাহবুবুর রহমান বিবাহের নকল দেয়ার কথা বলে আইরিন আক্তারের কাছ থেকে ১৪ হাজার টাকা হাতিয়ে নিয়ে এখনো বিবাহের নকল দেয় নাই।

এ ঘটনায় ভুয়া কাজী মাহবুবুর রহমানের অভিনব প্রতারনায় আইরিন আক্তার এখন অসহায় দিশেহারা হয়ে পড়েছে। প্রতারক ভুয়া কাজী মাহবুবুর রহমানকে আইনী প্রক্রিয়ায় গ্রেফতার করা হোক।

এ ব্যাপারে কুড়িগ্রাম সাংবাদিক সমিতির সভাপতি আমিনুল ইসলাম মুকুল বলেন- উলিপুর উপজেলায় হাতিয়া ইউপির আব্দুস সালাম কাজীর সহযোগী সাব-কাজী পরিচয়দানকারী ভুয়া কাজী মাহবুবুর রহমানের কারনে অনেক নিরীহ পরিবার আজ নিঃস্ব।

NEXT ARTICLE Next Post
PREVIOUS ARTICLE Previous Post
NEXT ARTICLE Next Post
PREVIOUS ARTICLE Previous Post
 

Sports

Delivered by FeedBurner