Gallery

Advertisement

Main Ad

Travel

Technology

11

ঐতিহাসিক সোনামসজিদের দানবাক্সের তালা ভেঙ্গে প্রায় ৪ লাখ টাকা চুরি।

আইসিটিনিউজ বিডি২৪: আলআমিন,শিবগঞ্জ প্রতিনিধি: আজ ৫ সেপ্টেম্বর চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার শিবগঞ্জ উপজেলার ঐতিহাসিক ছোট সোনামসজিদের দানবাক্সে থেকে তালা ভেঙ্গে প্রায় ৪ লক্ষ টাকা চুরি হয়েছে বলে অনুমান করা হয় । বুধবার দিবাগত গভীর রাতে এ টাকা চুরি হয় বলে জানা যায়।

জানা গেছে, বিগত ১১ মাস থেকে দানবাক্সটি তালা বদ্ধ ছিল। এই বাক্সের প্রায় ৪ লাখ টাকা হতে পারে বলে ধারণা করছেন মসজিদ কমিটির সাধারণ সম্পাদক মো. মোজাম্মেল হক ও ইমাম হিজবুল্লাহ। আরো জানা যায় এ দানবক্সো বছরে একবার খোলা হয়।

এদিকে মসজিদের মোয়াজ্জিন মো. সাদিকুল ইসলাম জানান, আমি ফজরে আযানের জন্য ভোর রাত ৪টার সময় মসজিদে আসি। কিন্তু মসজিদের মুলফটকের দরজার তালা খুলে দেখি দানবক্সের তালা দুই টি ভাঙ্গা এবং বাক্সের কিছু টাকা এলোমেলোভাবে পড়ে আছে। আমি সাথে সাথে ইমাম ও পাশের বাজারের নৈশপ্রহরীকে ডেকে বিষয়টি জানাই।

এব্যাপারে মসজিদের ইমাম হিজবুল্লাহ জানান, মসজিদের মোয়াজ্জিন মো. সাদিকুল ইসলাম আমাকে ও কোষাধ্যক্ষকে সাথে সাথে মোবাইলে বিষয়টি জানালে আমি তাৎক্ষনিক মসজিদে চলে আসি। এরপর দেখি মসজিদের উত্তর দিকের ছোট্ট পকেট গেটের তালা ভাঙ্গা। তিনি আরো জানান, এই মসজিদের দানবক্স  বিগত ১১ মাস থেকে  তালাবদ্ধ ছিলো এই দান বাক্স। এখানে প্রায় ৪ লাখ জমা হয়েয়ে বলে ধারণা করছি। কেননা, প্রতি বছর এই দানবাক্সে প্রায় ৫ থেকে ৬ লাখ টাকা করে জমা হতো।

এদিকে, মসজিদ কমিটির সাধারণ সম্পাদক মো. মোজাম্মেল হক জানান, ঘটনার পর থেকে আমরা বিষয়টি নিয়ে চিন্তিত। কেননা, এটি সরকারি তহবিল। এখান থেকে টাকা চুরি হবে আমি ভাবতেও পারছি না। তিনি আরো বলেন, এই ঘটনার বিষয়টি আমি মসজিদ কমিটির সভাপতি উপজেলা নির্বাহী অফিসার চৌধুরী রওশন ইসলাম স্যারকে অবগত করেছি।

এদিকে মসজিদ কমিটির সভাপতি উপজেলা নির্বাহী অফিসার চৌধুরী রওশন ইসলাম জানান, মসজিদের দানবাক্সের টাকা চুরির বিষয়টি তাৎক্ষনিক জানতে পারিনি। বিষয়টি আপনার কাছ থেকে জানলাম। ঘটনাটি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে এবং চিহ্নিত কোন ব্যক্তিকে না পেলে অজ্ঞাত ব্যক্তির নামে মামলা দায়ের হবে।

NEXT ARTICLE Next Post
PREVIOUS ARTICLE Previous Post
NEXT ARTICLE Next Post
PREVIOUS ARTICLE Previous Post
 

Sports

Delivered by FeedBurner