Gallery

Advertisement

Main Ad

Travel

Technology

কালিগঞ্জে ভাটা ও বালু ব্যবসায়ীদের অবৈধ যানবাহন চলাচল বন্ধ ও রাস্তা সংস্কারে দাবিতে মানবন্ধন

আইসিটিনিউজ বিডি২৪: মাসুদ পারভেজ বিশেষ প্রতিনিধিঃ কালিগঞ্জে কাঁকশিয়ালী নদীর চর দখল করে পানি উন্নয়ন বোর্ডের রাস্তার ধারে গড়ে ওঠা বিভিন্ন ইট ভাটা ও বালু ব্যবসায়ীদের অবৈধ ট্র্যাক, টলি, ট্রাক্টর, ডাম্পার চলাচল বন্ধ ও রাস্তা সংস্কারের প্রতিবাদে এক মানবন্ধন অনুষ্ঠান  অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার বেলা ১১টার সময় কালিগঞ্জ উপজেলা বাসীর আয়োজনে কাঁকশিয়ালী ব্রিজ হতে ঘোজাডাঙ্গা, গোবিন্দকাটি সড়কে এ মানবন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত মানবন্ধন অনুষ্ঠানে এলাকার শত শত নারী-পুরুষের অংশ গ্রহনে রাস্তা সংস্কার ও ইট ভাটা এবং  বালু ব্যবসায়ীদের অবৈধভাবে চলাচল করা ট্র্যাক, টলি, ট্রাক্টর, ডাম্পার বন্ধের দাবি জনানো হয়। উক্ত মানবন্ধন অনুষ্ঠানে কুশুলিয়া ইউনিয়ন পরিষদের এক নম্বর ওয়ার্ড সদস্য রফিকুল বারীর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন কুশুলিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শেখ এবাদুল ইসলাম। বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন উজ্জিবনি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ইকবাল আলম বাবলু, ময়নুদ্দিন খাঁন মনি, থানা যুবলীগের সাংগনিক সম্পাদক জাহিদ হাসান, থানা তথ্য প্রযুক্তি লীগের সভাপতি মাসুদ পারভেজ (কাপ্টেন), থানা ছাত্রলীগের সংগাঠনিক খায়রুল বাশার, দৃষ্টিপাতের ব্যুরো  প্রধান সাংবাদিক আশেক মেহেদী, কুশুলিয়া ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি উসমান খাঁন। এছাড়াও এলাকাবাসীর পক্ষে বক্তব্য রাখেন আলমগীর হোসেন, জাকির হোসেন, ময়নুদ্দিন খাঁন, সবুজ, আফজাল, মোতাহার প্রমুখ। মানবন্ধন অনুষ্ঠানে বক্তরা বলেন কালিগঞ্জ উপজেলা সদর হতে কুশুলিয়া ইউনিয়ন এবং দক্ষিণ শ্রীপুর ইউনিয়নের ৮টি গ্রামের জনসাধারণের দৈন্যন্দিন ব্যবসা-বাণিজ্য, হাসপাতাল, স্কুল, কলেজ, মাদ্রসায় যাতায়তের একমাত্র পথ গোবিন্দকাটি হতে ঘোজাডাঙ্গা হয়ে পানি উন্নয়ন বোর্ডের রাস্তা ধরে কালিগঞ্জ সদরে পৌছাতে হয়। কিন্তু উক্ত রাস্তার নদীর পাশে শত শত একর পানি উন্নয়ন বোর্ডের জমি নামে-বেনামে লীজ নিয়ে বছরের পর বছর মাটি খনন করে রাস্তার পাশে গড়ে ওঠা ৩টি ভাটা যথাক্রমে শেখ বিক্স, ময়না বিক্স, সততা বিক্স উক্ত নদীর চরের মাটি ব্যবহার করে আসছে। এর ফলে পানি উন্নয়ন বোর্ডের রাস্তাটি ভেঙ্গে জনসাধারণের চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। এছাড়াও উক্ত রাস্তার ধারে বহিরাগত অবৈধ বালু ব্যবসায়ীরা বালুর স্তুপ দিয়ে প্রতিদিন ভাটার ইট, মাটি, বালু এবং বালু ব্যবসায়ীদের বহনের জন্য অবৈধ  ট্রাক, টলি, ডাম্পার, ট্রাক্টর, স্যালো মেশিনের তৈরি মিনি ট্রাক ব্যবহার করে রাস্তাটি ভেঙ্গে খানা খন্দে পরিণত  হয়েছে। যেকারণে পুরো বর্ষা মৌসুম আসলে রাস্তায় কাঁদা ও পানি জমে ভাঙ্গনের সৃষ্টি হয়। বিষয়টি নিয়ে আমরা প্রতিবাদ করলে উল্টো বালু ব্যবসায়ী এবং ভাটা মালিকদের পোষ্য ক্যাডার বাহিনী দিয়ে চাঁদাবাজী সহ বিভিন্ন মামলার হুমকি দিয়ে আসছিল। উক্ত রাস্তায় অবৈধভাবে চলাচলকৃত যানবহন বন্ধের জন্য জেলা প্রসাশক মহোদয়ের আশু-হস্তক্ষেপ কামনা করেছে উপজেলাবাসী ।

NEXT ARTICLE Next Post
PREVIOUS ARTICLE Previous Post
NEXT ARTICLE Next Post
PREVIOUS ARTICLE Previous Post
 

Sports

Delivered by FeedBurner